agrobangla
×

Warning

Error loading component: com_finder,

হাইড্রোকালচার

ঘর সাজাতে কতো না ঝক্কি। কিন্তু কে না চায় নিজের ঘরকে স্বতন্ত্র, সুন্দর, আকর্ষণীয় করে সাজাতে। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ঘর সাজানোর ঢঙও পাল্টেছে, এসেছে লেটেস্ট মডেলের সব আসবাবপত্র। সিলিঙে দোল খাওয়া নীল, হলুদ বাতি, ওয়াল পেইন্টিং, ওয়াল ম্যাট, বাঁশ কিংবা কাঠের অপূর্ব কারুকার্য আরও কতো কী! ঘরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে বসার কিংবা শোবার ঘরে মাটির সঙ্গে গাছ, পানির সঙ্গে মাছের অনুপ্রবেশ ঘটেছে বেশ আগে। হালে এসবের পাশিপাশি পানির সঙ্গে গাছেরও যোগ হয়েছে। অর্থাৎ মাটির পরিবর্তে পানিতে গাছ, লতা লাগানো হচ্ছে। একে বলা হয় হাইড্রোকালচার।

হাইড্রোকালচারের গোড়ার কথা হাইড্রোকালচারের প্রথম প্রসার ঘটে ইউরোপ, আমেরিকায়। সত্তর দশক থেকে যার শুরু। তখন নানা ধরনের চমকপ্রদ পানি ভরা পাত্রে গাছ লাগানো হতো। গাছকে সুন্দর তরতাজা রাখতে সার পর্যন্ত ব্যবহার করা হতো। ধীরে ধীরে এর জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেতে থাকে। যার রেশ ধরে আজ আমাদের দেশের বিভিন্ন ঘরে ঘরেও এর ব্যবহার পৌঁছে গেছে।

পানি যখন মাটি ঘরে মাটির পরিবর্তে পানিতে গাছ লাগানোর পদ্ধতিকে বলে হাইড্রোকালচার পদ্ধতি। এর ব্যবহার ঘরের যেকোনো জায়গায় করা যায়। ঘর সাজাতে ইদানিং হাইড্রোকালচার পদ্ধতি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

জলপাত্র নির্বাচন বাজার থেকে প্রথমে আকর্ষণীয় এবং রুচিশীল কয়েকটি জলপাত্র সংগ্রহ করুন। এপাত্র গোলাকার, কোণাকৃতি অথবা চারকোণা হতে পারে। হতে পারে জার কিংবা বোতল। বাজারে আধুনিক কারুকার্য সংবলিত সুদৃশ্য জলপাত্র কিনতে পাওয়া যায়। এপাত্র চিনামাটির অথবা কাচের হতে পারে। তবে কাচের হলে ভালো হয়। পানি ভরা কাচের পাত্র ঘরে চমৎকার মানাবে।

কি গাছ লাগাবেন সংগৃহীত জলপাত্রের গলা পর্যন্ত পানি ভরে ফেলুন। এবার ওই পাত্রের মধ্যে গাছ লাগিয়ে দিন। মানিপ্ল্যান্ট, শ্যাওলা, কচুরিপানা এবং কচুজাতীয় গাছ হাইড্রোকালচার করার জন্য উত্তম।

ধুলাময়লা নো ঝামেলা হাইড্রোকালচার পদ্ধতিতে গাছ পানিতে হয় বলে মাটির কোনো প্রয়োজন হয় না। এজন্য ঘরবাড়ি ময়লা হওয়ার সুযোগ নেই। গাছকে সতেজ রাখতে দু’সপ্তাহ অন্তর পাত্রের পানি পরিবর্তন করুন। পানি পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে গাছের পাতাগুলোও ধুয়ে দিন। পানির সঙ্গে সামান্য পরিমাণ ইউরিয়া সার মিশিয়ে দিতে পারেন। এতে গাছের চেহারা ভালো হবে।

স্থান নির্বাচন ও ঘর সাজানো হাইড্রোকালচার করা পাত্রটি দিয়ে আপনি ড্রয়িং রুম, বেড রুম, রিডিং রুম এমনকি বারান্দায়ও রাখতে পারেন। পাত্রটি রাখতে পারেন ঘরের ওয়ারড্রপ, শোকেজ, ফ্রিজ, ড্রেসিং টেবিল বা পড়ার টেবিলের ওপরে। ঘরের দেয়ালে আলাদা র্যাক তৈরি করে নিয়েও এর ওপর পাত্রটি রাখা যায়। ছোট বড় পাত্রগুলো ঘরের কোথায় এবং কীভাবে রাখলে বেশি মানানসই হবে তা আপনিই ঠিক করুন। পাত্রটি আরও আকর্ষণীয় এবং পাত্রের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে আপনি পাত্রের মধ্যে পরিষ্কার ছোট ছোট কিছু পাথর ছেড়ে দিতে পারেন।

শেষ কথা যে বাড়ি বা বাসায় আপনি দিনের অধিকাংশ সময় কাটান তাকে সজীব করে রাখলে, তাতে প্রাণের স্পন্দন সৃষ্টি করতে পারলে আপনার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির অন্যান্য সদস্যদেরও ভালো লাগবে। তাই খুব সহজেই আমরা ঘর সাজাতে হাইড্রোকালচার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারি।
লেখক: ইমরুল ইউসুফ
মোবাইল: ০১৭১১১১২৬৫৬